আমাদের অ্যম্বাসেডর

অ্যাকসেস এগ্রিকালাচার-এর অ্যম্বাসেডরেরা হলেন স্বেচ্ছাসেবী, যাঁরা তাঁদের নিজের নিজের দেশে অ্যাকসেস এগ্রিকালাচার-এর কাজ করেন।

উগান্ডা
কঙ্গো
কোট ডি'ভোয়ার
তাঞ্জানিয়া
বাংলাদেশ
বেনিন
ভারত
মালাউই
মালি
ম্যাডাগ্যাস্কার
রুয়ান্ডা
লাইবেরিয়া

বাংলাদেশ

অনারারি অ্যাম্বাসেডর ফর এশিয়া
Shaikh Tanveer Hossain
শেখ তানভীর হোসেন জাপানের ‘এহমি বিশ্ববিদ্যালয়’ থেকে কৃষিতে পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন। তিনি জাপানের টোকিও-তে এশিয়ান প্রোডাকটিভিটি অর্গানাইজেসন (এপিও0 নামে একটি আন্ত-সরকারি প্রতিষ্ঠানে কাজ করেন। ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অব অর্গানিক অ্যাগ্রিকালচারাল মুভমেন্টস (আইএফওএএম) থেকে তিনি ২০১১ সালে ‘অর্গানিক ফার্মিং ইনোভেশন অ্যাওয়ার্ড’ এবং ২০১৫ সালে ‘হিভোস সোশাল ইনোভেশন অ্যাওয়ার্ড’ লাভ করেন। তিনি আইএফওএএম-এশিয়ার প্রাক্তন ভাইস প্রেসিডেন্ট। বর্তমানে তিনি সাসটেইনেবল অর্গানিক অ্যাগ্রিকালচার অ্যাকশন নেটওয়ার্ক([এসওএএএন)-এর পরামর্শক দলের একজন সদস্য।
Harun-Ar-Rashid
বাংলাদেশ কৃষি বিশ^বিদ্যালয় থেকে ‘অ্যাগ্রোনমি’ বিষয়ে এমএসসি ও যুক্তরাজ্যের রিডিং বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ‘ক্রপ ফিজিওলজি’-তে আরেকটি এমএসসি ডিগ্রি নেন। বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন অ্যাজেন্সিসহ এনজিও, জাতীয়, আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান ও প্রাইভেট সেক্টরে তিনি কৃষি সম্প্রসারণ ও ‘রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট’ নিয়ে ৩৫ বছর ধরে কাজ করছেন। হারুন-আর-রশিদ বাংলাদেশের একটি অগ্রসরমান কৃষিভিত্তিক এনজিও, ‘অ্যাগ্রিকালচারাল অ্যাডভাইজারি সোসাইটি’ -এর প্রতিষ্ঠাতা। তিনি ২০০৫ সাল থেকে সারাদেশে ‘কৃষক থেকে কৃষক’ প্রশিক্ষণ ভিডিওগুলোর বিতরণ করে আসছেন।

বেনিন

Bokossa Thiburce Siodine
একজন জৈব-পরিসংখ্যানবিদ। এ-বিষয়ে তিনি মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন। কৃষি-বিষয়ক তথ্য সংগ্রহ এবং প্রক্রিয়াকরণের ক্ষেত্রে তাঁর অভিজ্ঞতা পাঁচ বছরের বেশি এবং বর্তমানে তিনি বেশ কিছু কৃষি-প্রকল্পে কাজ করছেন। অ্যাকসেস এগ্রিকালচার অ্যাম্বাসেডর হিসেবে তিনি কৃষি-শিক্ষার্থীদের কৃষিকাজ শেখার পাশাপাশি কৃষি-ব্যবসায় শুরু করতে অ্যাকসেস এগ্রিকালচার ভিডিও প্ল্যাটফর্মকে কাজে লাগিয়ে উৎসাহ দেওয়ার ব্যাপারে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।
Maliki Agnoro
অ্যাবোমে-কালাভি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষিবিজ্ঞান বিভাগের একজন স্নাতক। তিনি একজন তরুণ ‘বেনিনেজ’ পেশাদার, যাঁর যুব উদ্যোক্ত উন্নয়ন এবং গ্রামীণ উন্নয়নে এক দশকের কাজের অভিজ্ঞতা রয়েছে। তাঁর বর্তমান লক্ষ্য হলো, তিনি অ্যাকসেস এগ্রিকালচারের প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে কৃষকদের জন্য কার্যকর কৃষি-প্রশিক্ষণ এবং গ্রামীণ ব্যবসায়ের উন্নয়নে কাজ করা।
Mahugnon Nehemiah Kotobiodjo
বেনিনের পারাক্যু বিশ্ববিদ্যালয়ের চাষাবাদ অনুষদ থেকে কৃষিবিজ্ঞানে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন। বর্তমানে তিনি কীভাবে গ্রামীণ উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখা যায় এ-বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করছেন। তার লক্ষ্য হলো, গ্রামীণ বিশ্বের টেকসই রূপান্তর ঘটানো এবং সেটা তিনি করতে চান অ্যাকসেস এগ্রিকালচারের ভিডিগুলোতে যে উদ্ভাবনী সমাধান দেখানো হয় সেগুলো প্রচারের মাধ্যমে।
Romuald Ulrich Assogba
গ্রামীণ অর্থনীতি ও সম্প্রসারণ বিভাগে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেছেন এবং বেনিনের অ্যাবমি-ক্যালাবি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি বিজ্ঞান অনুষদ থেকে কৃষি সম্প্রসারণ এবং পরামর্শে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেছেন। তিনি বর্তমানে জৈব ও পরিবেশগত কৃষিচাষের প্রচারে কাজ করছেন। কৃষি পরামর্শ সম্পর্কে উত্সাহী, বিশেষত জৈব চাষ, তিনি জৈব ও পরিবেশগত কৃষি সম্পর্কিত তদারকি ও পরামর্শ এজেন্সি (ASCABE) তেও কর্মরত এবং বেনিন অ্যাসোসিয়েশন অফ এগ্রিকালচারাল এক্সটেনশন অ্যান্ড কনসালটিং প্রফেশনালসের (এবিপিভিসিএ) ফাউনডেশনর সদস্য। অ্যাকসেস এগ্রিকালাচার-এর অ্যম্বাসেডর হিসেবে রোমুয়াল্ড জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে কৃষি সম্প্রসারণ এবং উত্পাদনকারী উভয় ক্ষেত্রে কৃষি প্রশিক্ষণের জৈব ও পরিবেশগত ভিডিও প্রচার করতে চান।
Jean-Jacques Senou Osseni Zinsou
বেনিনে কৌশল এবং ব্যবসায়িক রূপান্তরের বিশেষজ্ঞ পরামর্শদাতা। তিনি নিয়মিত ওয়েবসাইট, সংবাদপত্র, রেডিও স্টেশন, টিভি স্টেশনগুলিতে কৃষি তথ্য প্রেরণ করেন। তিনি কৃষি সম্পর্কিত বিষয়গুলি নিয়ে ব্লগ করেন এবং অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া চ্যানেলগুলির জন্য লেখেন। একটি দলের সহায়তায় তিনি তালিকাভুক্ত পার্টনারদের জন্যএকটি ওয়েব প্ল্যাটফর্ম তৈরি করার পরিকল্পনা করছেন। তিনি এবং তার দল কৃষি পরামর্শ সম্পর্কে কথা বলতে একটি স্থানীয় পত্রিকার কলাম স্থাপনের জন্য আলোচনা করছেন। তারা স্থানীয় রেডিওতে একটি কৃষি উপদেষ্টা প্রোগ্রাম এবং একটি কৃষি টিভি প্রোগ্রাম চালু করার পরিকল্পনা করছেন। এর অংশ হিসাবে তারা কৃষি মূল্য চেইনের উপর একটি প্রোগ্রামের প্রচারের জন্য বিবি২৪ টিভি চ্যানেলের সাথে আলোচনা করছেন। যুবক এবং মহিলাদেরকে উদ্দেশ্য করে জিন-জ্যাক বিভিন্ন যোগাযোগের চ্যানেল এবং নেটওয়ার্কগুলির মাধ্যমে অ্যাক্সেস এগ্রিকালচার এবং এগটিউব ভিডিও প্ল্যাটফর্ম সম্পর্কে তাদের অবহিত করতে চান।

কঙ্গো

Jean Baptiste Musabyimana Ntamugabumwe
ডিআরসি-তে সিইপিআরওএমএডি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংগঠনিক যোগাযোগ বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি ২০০৬ সাল থেকে ফেডারেশন অব অরগানাইজেশন অব এগ্রিকালচার প্রোডিউসার অব কঙ্গো, এফওপিএসিএনকে-এর শিক্ষা এবং তথ্য ও যোগাযোগ বিষয়ে দায়িত্ব পালন করছেন। ২০১৮ সালে তিনি অ্যাসোসিয়েশন অব এগ্রিকালচার জার্নালিস্ট অব কঙ্গো, এজেএসি-এর জাতীয় সমন্বয়কারী নিযুক্ত হন। কৃষিপণ্যের উন্নত উৎপাদনের জন্য তিনি ডিআর কঙ্গোতে অ্যাকসেস এগ্রিকালচারের ভিডিও ও অডিওগুলো কৃষকদের মধ্যে জনপ্রিয় করে তোলার মিশন হাতে নিয়েছেন।
Pholo Mvumbi Roger
ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক অব কঙ্গো-র টেকনিক্যাল স্কুল অব হায়ার এডুকেশন থেকে ব্যবস্থাপনায় পাণ্ডিত্য লাভ করেন। তাঁর সাংবাদিকতায় ডিপ্লোমা রয়েছে এবং তিনি কৃষি ও জলবায়ু পরিবর্তনের ওপর বেশ কিছু প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করেছেন। তাঁর এনজিও অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্টিগ্রেটেড রুরাল ডেভেলপমেন্ট অব এনগান্ডা টিসানডি অ্যাডেরিগাস-এর সভাপতি পদে কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে। তিনি মেউম্বি কোকোমা কোকোয়া কো-অপারেটিভ-এর যোগাযোগ কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করেছেন এবং বর্তমানে তিনি ডিআরসিওএনজিও এএসএসএ-এর জাতীয় নির্বাহী সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি তাঁর দেশে এবং আফ্রিকার উপ-অঞ্চলে গণমাধ্যমে এবং একজন উন্নয়নকর্মী হিসেবে ভিডিও প্রচারে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে সবচেয়ে বেশিসংখ্যক মানুষের কাছে পৌঁছানোর ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী।

ম্যাডাগ্যাস্কার

Sitrakilaina Fifalianaharintsoa
মাদাগাস্কার আন্তানানারিভো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে খাদ্য ও পুষ্টি-বিজ্ঞানে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি এস্পেরেঞ্জা জয় অব চিল্ড্রেন নামক একটি এনজিও এবং আন্তানানারিভো বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে খাদ্যসামগ্রীর ‘ডিজাইন’ করেন এবং অপুষ্টির বিরুদ্ধে লড়াই করেন। অ্যাকসেস এগ্রিকালচার অ্যাম্বাসেডর হিসেবে তিনি কীভাবে ভালো কৃষি কাজের অনুশীলন করা যায় সে-বিষয়ে ভিডিওর মাধ্যমে কৃষকদের বিশেষত গ্রামীণ কৃষকদের উদ্ভাবনী ধারণা দিতে চান এবং এবং তাঁর নিজের অভিজ্ঞতাগুলো তাদের সাথে শেয়ার করতে চান।

মালাউই

Patrick Khonga
কন্টিনিউয়িং এডুকেশন সেন্টার থেকে ব্যবসা পরিচালনা বিষয়ে ডিপ্লোমা অর্জন করেন। তিনি ইটালির একটি বেসরকারি সংস্থা সিআইএসপি-তে অর্থ-ব্যবস্থাপক হিসেবে আট বছর কাজ করেছেন। তিনি সিএইচএকেএইচও ফার্মের প্রতিষ্ঠাতা এবং ২০১৪ সাল থেকে এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এই ফার্মটি উদ্যানচর্চা, পোল্ট্রি, গবাদিপশু ও ছাগল পালনে বিশেষায়িত এবং এটি মালাউই-এর রাজধানী শহর লিলংগোয়-তে অবস্থিত। কৃষি-ব্যবসায়ে আয় বাড়ানোর জন্য বাস্তব অভিজ্ঞতা শেয়ার করার ক্ষেত্রে ‘কৃষক থেকে কৃষক’ ভিডিওগুলো গুরুত্বপূর্ণ বলে তিনি বিশ্বাস করেন।
Moses Kaufa
একজন পেশাদতার গণমাধ্যম কর্মী। তিনি গণযোগাযোগ বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। অডিও-ভিজ্যুয়াল প্রোডাকশন, প্রকাশনা, কমিউনিটি ও গ্রামীণ উন্নয়ন প্রকল্প পরিচালনা, বার্তা সম্প্রচার ও অনুবাদ, কমিউনিটি মোবিলাইজেশন ও নাগরিক শিক্ষা, কমিউনিটি ও প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা জোরদার করা, অ্যাভোকেসি ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম প্রভৃতি বিষয়ে তাঁর দশ বছরেরও বেশি সময় ধরে কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে। বর্তমানে তিনি ‘কৃষক থেকে কৃষক’ ভিডিও প্রোডাকশন করছেন, গ্রামীণ উন্নয়নে উদ্ভাবনী কাজকে সমর্থন জোগাচ্ছেন এবং মালাউই-তে ‘কৃষক থেকে কৃষক’ ভিডিও সম্প্রচারের কাজ করছেন। একজন অ্যাকসেস এগ্রিকালচার অ্যাম্বাসেডর হিসেবে ভূমিকা পালন করতে পারবেন বলে তিনি আশাবাদী।
Patrick Ken Kalonde
এগ্রিকালচার অ্যান্ড ন্যাচারাল রিসোর্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (LUANAR) থেকে প্রাকৃতিক সম্পদ [ভূমি ও পানি] ব্যবস্থাপনায় স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি ইয়ুথ ফর এনভায়রনমেন্টাল ডেভেলপমেন্ট-র সহ-প্রতিষ্ঠাতা। এই সংস্থাটি ‘মেরিন লিটার’ ইস্যু নিয়ে কাজ করে। তিনি বান্ডা সোসাইটি অব ইনোভেটরস-এরও সহ-প্রতিষ্ঠাতা। এটি বিশ্ববিদ্যালয়ভিত্তিক একটি ক্লাব। এই ক্লাবটি শিক্ষার্থীদের দ্বরা উদ্ভাবনীগুলোর চর্চা করে। টেকসই ভ‚মি ব্যবস্থাপনা, ‘পারমাকালচার’ এবং ভেড়া চাষে তাঁর প্রবল ইচ্ছা রয়েছে এবং এই জন্য একজন অ্যাকসেস এগ্রিকালচার অ্যাম্বসেডর হিসেবে তিনি গর্ব বোধ করেন।

মালি

Sidi Yehia Tounkara
নাইজেরিয়ার ইবাদান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রাণীবিজ্ঞানে ইঞ্জেনিয়ারিং ডিগ্রি এবং কৃষি সম্প্রসারণ ও গ্রামীণ বিকাশ বিষয়ে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন। কৃষিবিদদের সাথে আলোচনা করাসহ প্রাণিসম্পদ বিষয়ে মাঠ-পর্যায়ে কাজ করার দারুণ অভিজ্ঞতা রয়েছে তাঁর। তিনি এর আগে প্যান আফ্রিকান টিসেটস অ্যান্ড ট্রাইপোনোসোমোসিস এরাডিকেশন ক্যাম্প্যাইন এবং ন্যাশনাল সেন্টার অব এগ্রোনোমিক্স রিসার্চ অব সোটুবা-তে কাজ করেছেন। বর্তমানে তিনি মালিতে TAAT প্রকল্পে টেকনোলজি ট্রান্সফার অফিসার হিসেবে কাজ করছেন। তিনি একজন অ্যাকসেস এগ্রিকালাচার অ্যম্বাসেডর হিসেবে তাঁর জ্ঞান ও দক্ষতা কাজে লাগাতে অঙ্গীকারবদ্ধ।

রুয়ান্ডা

Francois Regis Hakizimana
রুয়ান্ডা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কৃষিবিজ্ঞানে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি ক্লিন্টন হেল্থ অ্যাকসেস ইনেশিয়েটিভ (CHAI) এ গত তিন বছর ধরে কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করছেন। এখানে তাঁর চর্চার বিষয় ভুট্টা এবং সয়াবিন শস্য। এর আগে তিনি ইসরাইলে টেকসই কৃষি ব্যবস্থাপনার ওপর ইন্টার্নশিপ করেন। একবছর তিনি কৃষি অধ্যয়ন করেন এবং ফল ও সবজি চাষে অংশগ্রহণ করেনে। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থার সাথে তাঁর পাঁচ বছরেরও বেশি সময় ধরে কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে। একজন অ্যাকসেস এগ্রিকালচার অ্যাম্বাসেডর হিসেবে হাকাজিমানা কৃষক এবং তাদের গ্রামীণ ব্যবসায়ের সুবিধার জন্য কার্যকার কৃষি-প্রশিক্ষণ ভিডিও প্রচার করতে বদ্ধপরিকর।

তাঞ্জানিয়া

Nyamhanga Chacha
তানজেনিয়ার সোকোইন কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কৃষি-অর্থনীতি এবং কৃষি-ব্যবসায় বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন। এর আগে তিনি কৃষকদের বাজার সম্পর্কিত তথ্য এবং ব্যাংক থেকে আর্থিক সহায়তা প্রদান বিষয়ে প্রাইভেট এগ্রিকালচার সেক্টর সার্পোট (PASS)-এ ইন্টার্নশিপ করেন। তিনি সাসটেইনেবল এগ্রিকালচার তানজেনিয়া (SAT) পরিচালিত কর্মশালাগুলোতে অংশগ্রহণ করেন এবং জৈবসবজি ও মসলা সম্পার্কিত বিশেষ প্রকল্পগুলো সম্পন্ন করেন। চাচা জৈব চাষাবাদ ও গ্রামীণ উন্নয়নে দারুণ আগ্রহী এবং তিনি অ্যাকসেস এগ্রিকালচারের একজন ভালো অ্যাম্বাসেডর হতে আশাবাদী।

উগান্ডা

Grace Musimami
গ্রেস মুসিমামি ‘মেকারার ইউনিভার্সিটি’ থেকে এনভায়রনমেন্টাল ম্যানেজমেন্ট-এ ব্যাচেলর ডিগ্রি ও সাংবাদিকতায় ডিপ্লোমা করেন। গ্রেস ‘ফারমার্স মিডিয়া নিউজপেপার’-এর সম্পাদক। এটি উগান্ডার একমাত্র কৃষিভিত্তিক সংবাদপত্র। সংবাদপত্রটি উগান্ডার বিভিন্ন বোর্ড-এর প্রতিনিধিত্ব করে থাকে- উগান্ডা ন্যাশনাল ফারমাস ফেডারেশন (ইউএনএফএফই) এবং উগান্ডা ফোরাম ফর অ্যাগ্রিকালচার অ্যাডভাইজারি সার্ভিসেসস (ইউএফএএএস)। এ ছাড়াও তিনি অ্যাগ্রিকালচারাল জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন অব উগান্ডা (এজেএইউ) এর প্রেসিডেন্ট এবং ‘নেটওয়ার্ক ফর অ্যাগ্রিকালচারাল জার্নালিস্টস ইন ইস্টার্ন অ্যান্ড সাউদার্ন আফ্রিকা’-এর সেক্রেটারি জেনারেল। কৃষকদের উন্নত ও উদ্ভাবনী কাজসমূহের, যেগুলো তাদের উপার্জন বাড়ায়, প্রসার ঘটাতে তিনি পছন্দ করেন।

লাইবেরিয়া

Jonathan S. Stewart
কৃষিতে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেছেন এবং যুব উন্নয়ন ও কৃষি বিভাগে ১০ বছরেরও বেশি অভিজ্ঞতা রয়েছে। বর্তমানে, জোনাথন অ্যাগ্রো টেক লাইবেরিয়ার নির্বাহী পরিচালক - এটি একটি যুবভিত্তিক বেসরকারী সংস্থা যেখানে তিনি যুবসমাজকে বেকারত্ব ও দারিদ্র্য হ্রাস করার জন্য তাদেরকে কৃষিক্ষেত্রে আকৃষ্ট করার চেষ্টা করছেন। তিনি শান্তি-নির্মাণ, কৃষিপ্রদর্শন এবং শিক্ষামূলক কার্যক্রমে পরামর্শদাতা হিসাবে যুবদের বেশ কয়েকটি উদ্যোগ নিয়ে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবেও কাজ করেন। জোনাথন কৃষিক্ষেত্র এবং উদ্যোক্তাদের মাধ্যমে "ক্ষুধা শূন্য" এবং অর্থনৈতিক উন্নয়নশীল আফ্রিকায় রূপান্তরের জন্য যুব নেতৃত্বকে চ্যাম্পিয়ন করার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। জোনাথন একজন "পরিবেশ কর্মী", যিনি লাইবেরিয়ার প্লাস্টিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা এবং জলবায়ু-স্মার্ট অনুশীলনগুলিতে সচেতনতা তৈরি করে সবুজ পরিবেশের জন্য প্রচার এবং প্রসার করেন।

ক্যাটাগরিসমূহ

Designed & Built by Adaptive - The Drupal Specialists