বাংলাদেশে কৃষি সম্প্রসারণে ভিডিওর ব্যবহার

 কৃষি সম্প্রসারনে ভিডিওর ব্যবহার বিষয়ে একটি প্রানবন্ত গোল টেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় যেখানে প্রতিনিধিত্ত করেন বাংলাদেশের প্রভাবশালী চিন্তক সমাজ

সম্প্রতি বাংলাদেশের ঢাকায় অ্যাকসেস এগ্রিকালচার বাংলা ওয়েবসাইটের জাঁকজমকপুর্ন মোড়ক উন্মোচন উপলক্ষে ‘কৃষি সম্প্রসারনে ভিডিওর ব্যবহার’, বিষয়ে একটি প্রানবন্ত গোল টেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় যেখানে প্রতিনিধিত্ত করেন বাংলাদেশের প্রভাবশালী চিন্তক সমাজ যারা বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি সংস্থা, কৃষি গবেষণা ও সম্প্রসারন এর পদস্থ কর্মকর্তাবৃন্দ, এবং বিশিষ্ট মিডিয়া ব্যক্তিত্তগন। অ্যাকসেস এগ্রিকালচার একটি আন্তর্জাতিক সংস্থা যা কৃষকদের ও গ্রামীন ব্যবসায়ীদের জন্য উপযোগী  আন্তর্জাতিক ও  স্থানীয় ভাষায় মানসম্পন্ন ভিডিওর মাধ্যমে দক্ষিন-দক্ষিন শিক্ষণ কাজে সহায়তা করে।    

গত ২৭শে ফেব্রুয়ারী উক্ত জমকালো অনুষ্ঠানটি যৌথভাবে আয়োজন করে সমকাল, বাংলাদেশের একটি অন্যতম জাতীয় দৈনিক, গনস্বাক্ষরতা অভিযান বাংলাদেশ, ও অ্যাকসেস এগ্রিকালচার। এতে সভাপ্রধান ছিলেন গনসাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক ও অ্যাকসেস এগ্রিকালচার এর বোর্ড মেম্বার মিসেস রাশেদা কে চৌধুরী এবং অনুষ্ঠানটি সঞ্ছালনা করেন সমকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক জনাব মোস্তফা শফি।     

অ্যাকসেস এগ্রিকালচারের কাজের পরিধি ও অর্জন বিষয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনায়, এর দক্ষিন এশিয়া প্রতিনিধি, আহমাদ সালাহুদ্দীন এর কৃষক বান্ধব ভিডিও-ভিত্তিক কৃষি-সম্প্রসারন এর ধারনা উপস্থাপন করেন যা বিজ্ঞান ও কৃষকদের জ্ঞান সমন্বয় করে কাজ করে।

ড সালাহুদ্দীন অংশগ্রহনকারীদের অবহিত করেন যে  অ্যাকসেস এগ্রিকালচার ওয়েবসাইটে প্রায় ৮০টি ভাষায় এগ্র-ইকোলজি ও গ্রামীন ব্যবসা বিষয়ে ২০০টির অধিক মানসম্পন্ন ভিডিও আছে, এর মধ্যে ১০০টি ভিডিও আছে বাংলা ভাষায়, যার সংখ্যা ক্রমান্নয়ে বাড়ছে। বাংলা ভিডিওগুলি বাংলা ভাষায় কথা বলেন এমন প্রায় ৩০ কোটি কৃষক ও গ্রামীন ব্যবসায়ীকে সেবা সুবিধা দিতে পারে।

“আমরা গর্বিত যে অ্যাকসেস এগ্রিকালচার এর বিশ্বব্যাপী কার্যক্রম শুরু করেছিল বাংলাদেশ থেকে এবং এখন এটি বাংলাভাষায় এর অয়েবসাইট উদবোধন করলো”, মিসেস চৌধুরী মন্তব্য করেন। এখন সময় এসেছে এটিকে ব্যবহার করে অ্যাকসেস এগ্রিকালচারের ভিডিওগুলিকে সম্ভাব্য সকল মাধ্যমে যেমন টিভি, রেডিও, কমুনিটি রেডিও, কৃষি-সম্প্রসারন বিভাগের মাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে দেয়ার মাধ্যমে বাংলাদেশের কৃষিকে আধুনিকায়ন করা।

এ গোলটবিল বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কৃষি-সম্প্রসারন অধিদফতরের এবং কৃষি তথ্য সংস্থার সাবেক কর্মকর্তা বৃন্দ। ছিলেন, নজরুল ইসলাম খান, বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরের কিউরেটর, সাবেক কৃষি সচিব শ্যামল কান্তি ঘোষ, কৃষি তথ্য সংস্থ্যার সাবেক পরিচালক জনাব নজ্রুল ইসলাম এবং ড. জাহাঙ্গীর আলম; অসিত সিং, হেড অব প্রোগ্রাম , সিসিডিবি; জনাব রেজাউল করিম সিদ্দিক, বিটিভি মাটি ও মানুষ প্রোগ্রাম, জনাব রিয়াজ আহমদ , নির্বাহী সম্পাদক, ঢাকা ট্রিবিউন; জনাব মীর এমদাদ আলী, এটিএন বাংলা টিভি, জনাব এম ডি শাহাদত হোসেন, ব্র্যাক কৃষি প্রোগ্রাম, প্র্যাকটিক্যাল অ্যাকশন বাংলাদেশের হেড অব বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ড. ফারুকুল ইসলাম এবং ড. শহিদুল ইসলাম, প্রকল্প পরিচালক, কৃষি সম্প্রসারন অধিদফতর।

এ অনূষ্ঠানটি অংশগ্রহনকারীদের জন্য কৃষি শিক্ষা এবং সম্প্রসারনের জন্য ডিজিটাল প্রযুক্তি এবং অ্যাকসেস এগ্রিকালচার  ভিডিওর গুরুত্ব আলোচনার জন্য একটি গুরুত্বপূর্ন মঞ্চ তৈরি করেছিল। লক্ষ লক্ষ কৃষকদের কাছে কৃষি সম্প্রসারন সেবা পৌঁছানোর জন্য ভিডিও-নির্ভর শিক্ষণ এর প্রয়োজন আছে বলে উপস্থিত সকলে একমত পোষন করেন এবং এজন্য অ্যাকসেস এগ্রিকালচার ওয়েবসাইট, যেটি বিভিন্ন বিষয়ের উপর উঁচু মানের  কৃষক থেকে কৃষক শিক্ষন ভিডিওর এর জন্য বাংলাদেশে এ ধরনের প্রথম উদ্যোগ, এর প্রসংসা করেন।  

অংশগ্রহনকারীরা বাংলাদেশে অ্যাকসেস এগ্রিকালচারের কার্যকারিতা বাড়ানোর জন্য বেশকিছু সুপারিশ প্রদান করেন, যেমনঃ

  • বাংলাভাষায় আরো বেশী ভিডিওর অনুবাদ করা, কিভাবে কৃষকরা বাজার দর ঠিকমত পেতে পারে, কিভাবে আবহাওয়া পরিবর্তনের সাথে মানিয়ে চলতে পারে এবং ফসল মাড়াই পরবর্তি ক্ষতি কিভাবে কমিয়ে আনা যায় এমন বিষয়ের উপর নতুন নতুন আরো ভিডিও তৈরী করা
  • কৃষি মন্ত্রনালয়ের সাথে আরো নিবিড় সম্পর্ক স্থাপন, কার্যকরী ফলাফলের জন্য কৃষক সংগঠনের সাথে এবং নারী ডিজিটাল সেন্টারগুলোর সাথে আরো নিবিড় সম্পর্ক স্থাপন
  • প্রস্তাবিত অ্যাকসেস এগ্রিকালচার অ্যাপ এর দ্রুত প্রকাশনা নিশ্চিত করা – যেহেতু এটি কৃষকদের জন্য ভিডিও ব্যবহার এবং শেয়ার করা সহজ করবে
  • কৃষকদের বিভিন্ন সাফল্যের গল্প ধারন ও প্রচার করা যেহেতু এগুলি অন্যদের অনুপ্রানিত করে

সকল অংশগ্রহনকারীদের ধন্যবাদ জানিয়ে ড. সালাহুদ্দীন বলেন, “আমরা অনেক খুশী যে অ্যাকসেস এগ্রিকালচারের বাংলা অয়েবসাইটের প্রকাশনা উৎসবের এ আয়োজন একটি গুরুত্তপুর্ন বিষয়ের উপর এত সুন্দর এবং গভীর আলোচনার সুযোগ করে দিয়েছে”। উনি সকলের উপস্থাপিত প্রশ্নসমুহের উত্তর দেন এবং সকল কে আস্বাস দেন যে তাদের গুরুত্তপুর্ন মতামত সমুহ অত্যন্ত গুরুত্তের সাথে বিবেচনা এবং বাস্তবায়িত করা হবে। তিনি গনসাক্ষরতা অভিযান এবং সমকাল কে এ জাকজমকপুর্ন অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

আরো তথ্যের জন্য ক্লিক করুনঃ www.samakal.com/todays-print-edition/tp-last-page/article/200228801/

ক্যাটাগরিসমূহ

Designed & Built by Adaptive - The Drupal Specialists