<<90000000>> দর্শক
<<240>> উদ্যোক্তা 17টি দেশে
<<4135>> টি কৃষিবাস্তুবিদ্যা ভিডিও
<<105>> ভাষা উপলব্ধ

ব্লগ

 

প্রকৃতির নির্দেশনায় চলুন

কৃষকদের প্রতিদিন সিদ্ধান্ত নিতে হয়। প্রত্যন্ত অঞ্চলে বসবাসকারী ছোটো ছোটো খামার মালিকেরা প্রায়শই জিজ্ঞাসা করার মতো লোক খুঁজে পান না। কখন কোন ফসলের চাষ করতে হবে অথবা বীজ বপণের উপযুক্ত সময় কোনটি তা তাদের কেউ বলে দেয় না। বলিভিয়ার আল্টোপ্লানোতে বসবাসকারী ইয়াপুচিচি জাতি জৈবচাষে অভিজ্ঞ, তারা প্রতিদিনের আবহাওয়া, প্রাকৃতিক সূচক এবং আবাদ করা ফসলের ওপর তাদের দৈনন্দিন পর্যবেক্ষণ রেকর্ড করতে শুরু করেছেন। কেউ কেউ বিগত দশ বছর ধরে কাজটি করছেন। 

 


আবর্জনা থেকে সম্পদ

খাদ্যবর্জ্য প্লাস্টিক ও অন্যান্য অজৈব পদার্থের সাথে না মিশিয়ে সেগুলো দিয়ে প্রয়োজনীয় কম্পোস্ট তৈরি করা যায়, যেকথা আমার স্ত্রী কোচাবাম্বার সেপ্রা রেডিওর এক অনুষ্ঠানে প্যানেল আলোচক হিসেবে বলেছিলেন। তাঁকে আলের্তা ভের্দে (গ্রিন এলার্ট) নামের একটি স্থানীয় এনজিও আমন্ত্রণ জানয়েছিল, সাথে আরও তিন জন আলোচক ছিলেন, তাদের মধ্যে দুজন ছিলেন কৃষিবিদ, যারা স্কুল ও পরিবারগুলোকে কম্পোস্ট তৈরিতে উৎসাহিত করেন এবং একজন ছিলেন ছাত্র, যিনি শহরের যে-সব পরিবারগুলো কম্পোস্ট তৈরি করে তাদের ওপর থিসিস লিখছেন।

প্রথম দু’জন আলোচক শহরবাসীদের উদ্বেগের বিষয়ে আলোচনা করেন। তারা জানান যে, কীভাবে মাছি, ইঁদুর ও দুর্গন্ধ…


কচুরি পানা একটি সমস্যা

বিশ শতকে এশিয়া আফ্রিকা এবং বিশে^র অন্যত্র উদ্যানপালকেরা সরলভাবে কচুরি পানার বিস্তার ঘটায়। কচুরি পানার চমৎকার নীল ফুল হয় এবং শোভাবর্ধনকারী ফোয়ারার সৌন্দর্য বাড়তে এগুলো ব্যবহার করা হয়। কিন্তু এগুলো সে-সব স্থান থেকে হ্রদ, পুকুর ও পৌরসভার পানি সরবরাহের ব্যবস্থায় ছড়িয়ে পড়ে পানি সরবরাহে বাধা সৃষ্টি করে। 

কচুরি পানা প্রচ- বিরূপ পরিস্থিতিতেও বেঁচে থাকতে পারে। আপনি পুকুরের জল সেঁচে ফেলুন এবং কচুরি পানার গাছগুলো রোদে শুকিয়ে পুড়িয়ে ফেলুনÑ পুনরায় যখন পুকুরটি জলে পরিপূর্ণ হবে, তখন আপনি পুকুরে কচুরি পানা দেখতে পাবেন। এটা আশ্চর্যজনক নয়…


পারিবারিক খামার থেকে পারিবারিক ব্যবসালয়

পেরুতে দেশীয় আলু রক্ষা করার একটি উপায় হলো সেগুলো খাওয়া এবং বিক্রি করা। সম্প্রতি আমি জানতে পেরেছি যে, সেখানে কিছুসংখ্যক রেস্টুরেন্ট মালিক সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে আলু কেনেন।

পল, মার্সেলা এবং আমি স্থানীয় কৃষিবিদ রাউল কেন্টো’র সাথে হুয়ানকায়ো শহরের খাদ্য-নিরাপত্তা এবং স্থানীয় বাণিজ্য প্রসারের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তা গুইডো ভিলেগাসের সাথে দেখা করতে গিয়েছিলাম। তিনি আমাদের বলেন যে, পেরুর সরকারের শিশুদের খাওয়ানোর একটি কর্মসূচি রয়েছে (কালিওয়ামরু : সবল শিশু) যেখানে জাতীয় সরকার খাদ্যসামগ্রী পাঠায়, যেগুলো সহজে পরিবহণ এবং সংরক্ষণ করা যায়। 

হুয়ানকায়ো শহরের শিশুদের সকালের নাশতা ও…


আমাদের মাটির জন্য একটি বিপ্লব

ক্ষয়ে যাওয়া মাটি পুনরায় উন্নত করা যায়, এবং মাটির পুষ্টি ফিরিয়ে আনা যায় যতক্ষণ না কম খরচে মাটি প্রচুর ফসল উৎপাদন করে ততক্ষণ পর্যন্ত। বায়ুম-ল থেকে কার্বন অপসারণ এবং এটিকে পুনরায় মাটিতে ফিরিয়ে আনা। এটিই ডেভিট মন্টগোমেরির ‘গ্রোয়িং আ রেভল্যুয়েশন’ বইয়ের আশাবাদী বার্তা।

পৃথিবীর বহু জায়গায় ঘন-ঘন চাষের ফলে মাটি ক্ষয়ে যায়। বাতাস ও জলের মাধ্যমে মাটির যে ক্ষয় হয় তা আগাছা পরিষ্কার এবং পুষ্টি ভেঙে যাওয়ার মাধ্যমে নিরসন হতে পারে।

প্রচলিত চাষের ফলে গত একশতকের বেশি সময়ের মধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্য-পশ্চিমাঞ্চলে মূল প্রেইরি মাটির অর্ধেক এবং বেশিরভাগ জৈবপদার্থ…


ফল আর্মিওয়ার্মের সাথে লড়াই

১৫০০ খ্রিষ্টাব্দের দিকে যখন মানুষ পালতোলা জাহাজে করে এক মহাদেশ থেকে অন্য মহাদেশে ফসলের গাছপালা ছড়িয়ে দিচ্ছিল তখন আফ্রিকায় ভুট্টা গাছ এসেছিল। সৌভাগ্যবশত, তখন ভুট্টার অনেক পোকামাকড় ভুট্টাগাছের সাথে আফ্রিকায় পৌঁছাতে পারেনি। তবে, বাণিজ্য ও ভ্রমণের ফলে ভুট্টাগাছের কীটপতঙ্গগুলো আফ্রিকার ভুট্টাগাছের কাছে পৌঁছে যায়। আমেরিকা থেকে সবশেষে যে শুঁয়াপোকাটি আফ্রিকায় এসে পৌঁছায় তার নাম ফল আর্মিওয়ার্ম। ক্রমান্বয়ে এটি মহাদেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়ে। এটি এখন আফ্রিকার প্রধান খাদ্যশস্যগুলোকে হুমকির মুখে ফেলে দিয়েছে। 

ভুট্টাগাছ যেমন আমেরিকান কীটপতঙ্গ ছাড়াই আফ্রিকা মহাদেশে এসেছিল, তেমনি ফল আর্মিওয়ার্মও তার…


মাটিতে জীবন দেখা

মাটিতে অনেক জীবন্ত প্রাণ আছে, সেগুলো বেশি পরিমাণে কার্বন ও পুষ্টি ধরে রাখে এবং বৃষ্টির জল আরও ভালোভাবে শুষে নিতে ও ধরে রাখতে পারে। এই সবগুলোই বিপর্যস্ত জলবায়ুর এই সময়ের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

কিন্তু মাটিতে জীবের পরিমাপ করা সময়সাপেক্ষ একটি কাজ হতে পারে, কেননা, এটি কেউ কী পরিমাপ করতে চায় তার ওপর নির্ভর করে। যদিও ব্যাকটেরিয়া ও ছত্রাক খালি চোখে দেখা যায় না, পিঁপড়া, কীড়া ও কেঁচো দেখা যায়।

কিন্তু বলিভিয়ায় আমরা যে-প্রশিক্ষণ ভিডিওগুলো শুট করেছি তার একটিতে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সংস্থা পিআরওআইএনপিএ ফাউন্ডেশনের এলিসিও মামানি আমাদের সতর্কতার সাথে দেখান যে, আপনি কীভাবে কৃষকদের সাথে…


মৃত্তিকা বিজ্ঞান ভিন্ন তবে সঠিক

মাটি চাষের ভিত্তি, আর সেই জন্যই আমাদের প্রায় সমস্ত খাদ্যেরও ভিত্তি মাটি। তবে, কৃষক ও মৃত্তিকা বিজ্ঞানীরা মাটিকে সম্পূর্ণ আলাদা চোখে দেখেন, যদি উভয়ই সমভাবে যথাযথ উপায়ে হয়।

সম্প্রতি আমি বলিভিয়ায় পল ও মার্সেলের সাথে মাটি পরীক্ষার একটি ভিডিও তৈরি করছিলাম যা সম্প্রসারণ এজন্টরা কৃষকদের সাথে করতে পারে। আমাদের স্থানীয় বিশেষজ্ঞ ছিলেন এলিসিও মামানি, তিনি বলিভিয়ার একজন প্রতিভাবান কৃষিবিদ। 

আমাদের পরিদর্শনের আগে এলিসিও মৃত্তিকা বিজ্ঞানী স্টিভ ভ্যানেকের সহযোগিতায় তিনটি পরীক্ষা প্রস্তুত করেছিলেন। পরীক্ষাগুলোর মধ্যে একটিতে ‘কণা জৈবপদার্থ’ আলাদা করার জন্য ব্যবহার করা হয়েছিল বোতল,…


মাইক্রো-শেফ বা অণুজীব-রাঁধুনী

এই যুগে যখন বহু সমাজ ফাস্ট ফুড এবং সুবিধাজনক তৈরি খাবার খাচ্ছে তখন আমি সম্প্রতি কোরিয়ান এয়ারে বাড়ি ফেরার সময় একটি তথ্যচিত্র দেখে খুশি হয়েছিলাম, যেখানে দেখানো হয়েছে, কীভাবে বিশ^জুড়ে নাগরিক, বিজ্ঞানী ও রাঁধুনীরা স্থানীয় খাদ্য এবং খাদ্যসংস্কৃতির গুরুত্ব লালন এবং প্রচার করতে উঠে পড়ে লেগেছে।  

‘দ্য শেফ অব টাইম’ শিরোনামের ডকুমেন্টারির উপস্থাপক ডাস্টিন ওয়েসা একজন আমেরিকান রাঁধুনী (শেফ)। তিনি গত ১৫ বছর ধরে কোরিয়াতে বসবাস করছেন। ডাস্টিন ওয়েসিয়া ‘ম্যাকগেওয়লি’র মতো গাঁজন দেওয়া খাবার ও পানীয় যেমন, দুধ দিয়ে বানানো হালকা ফেনাযুক্ত ভাতের মদ তৈরির বিশেষজ্ঞ।

তাঁর প্রারম্ভিক…


জ্ঞানের অভিশাপ

কীভাবে স্পষ্ট করে লিখতে হয়, বিশেষত ক্ষুদ্র কৃষকদের জন্য, সে বিষয়ে এখানে কিছু চমৎকার পরামর্শ দেওয়া হলো। 

স্টিভেন পিংকার ভাষা ও মন বিষয়ে মনোমুগ্ধকর বই লেখেন, বইগুলোতে তিনি জটিল ধারণাগুলোকে স্পষ্টভাবে ব্যাখ্যা করার কৌশল শিখিয়েছেন। তিনি এত প্রচুর পড়েছেন যে, সহিংসতার প্রতিটি শাখাকে চিহ্নিত করে একটি ইতিবাচক বই লিখেছেন এবং ব্যাখ্যা করে দেখিয়েছেন যে, বেশিরভাগ লোকে যাই ভাবুক না কেন, বিশ^ আরও শান্তিপূর্ণ হয়ে উঠছে এবং পিংকার অনেক উদাহরণও দিয়েছেন।

পিংকারের বেশিরভাগ বইতে তিনি কখনও-না-কখনও যারা অন্য লোকেদের ইংরেজি সংশোধন করে, তাদের উপহাস করেছেন, এদের তিনি ‘বিশুদ্ধবাদী’ বলতে…


আমাদের স্পনসরদের ধন্যবাদ